উকুন দূর করার প্রাকৃতিক উপায়

উকুনের সমস্যা যার একবার হয়েছে সে জানে এর কষ্ট। মাথা চুলকাতে চুলকাতে দিন কেটে যায়, উকুন দূর করার সহজ উপায় কি? উকুন দূর করার প্রাকৃতিক উপায় জেনে নিন।

আরো পড়ুন: অনিয়মিত পিরিয়ডের সমাধান করার দুটি ঘরোয়া উপায়

টি ট্রি অয়েল

এই তেলে থাকা উপাদান খুব দ্রুত উকুন মেরে ফেলে এবং উকুনের ডিমও ধ্বংস করে ফেলে। ফলে নতুন করে উকুনের সমস্যা হওয়ার আশঙ্কা কম থাকে। রাতে শোবার আগে টি ট্রি অয়েল পরিমাণ মতো নিয়ে মাথায় লাগিয়ে ভাল করে মাসাজ করে নিতে হবে। তারপর বালিশের উপর একটা তোয়ালে পেতে শুয়ে পড়ুন। পরদিন সকালে ঘুম থেকে উঠে চুল আঁচড়ে দেখুন ম্যাজিক!

নিম তেল

নিম তেলে থাকা অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল প্রপাটিজ উকুন নিমেষে মেরে ফেলতে পারে। সাথে উকুনের ডিমকেও নষ্ট করে ফেলতে পারে। নিম তেল স্কাল্পের স্বাস্থ্যের উন্নতি এবং চুলের সৌন্দর্য বৃদ্ধি করতেও দারুণ উপকারী। কয়েক ফোঁটা নিম তেল এবং শ্যাম্পু (পরিমাণ মতো) মিশিয়ে বারে বারে চুল ধুয়ে ফেলতে হবে। চুল ধোয়ার পর চুল চিরুনি দিয়ে আঁচড়ে ফেলুন।  কয়েকদিন করলেই আপনি উকুন থেকে মুক্তি পেয়ে যাবেন।

আরও পড়ুন: দাঁত সাদা করার ঘরোয়া পদ্ধতি

অলিভ অয়েল

গবেষণায় দেখা গেছে অল্প পরিমাণ অলিভ অয়েল নিয়মিত চুলে লাগিয়ে যদি ভাল করে মাসাজ করা হলে উকুনের সমস্যা কমতে সময় লাগে না। অলিভ অয়েলে থাকা বেশ কিছু উপাদান উকুনদের নিমেষে মেরে ফেলে। ফলে সমস্যা কমতে সময় লাগে না। তাই উকুন তাড়ানোর উপায় হিসাবে অলিভ অয়েল ব্যবহার করুন।

নারকেল তেল

নারকেল তেল অলিভ অয়েলের মতো চুল পিচ্ছিল করে ফেলে। এর ফলে চুলের ফাঁকে ফাঁকে থাকা উকুন এবং উকুনের ডিমও ঝরে পড়ে। পরিমাণ মতো নারকেল তেল গরম করে নিয়ে স্কাল্পে ধীরে ধীরে লাগিয়ে নিন। দুই ঘণ্টা পর শ্যাম্পু দিয়ে চুল ভাল করে ধুয়ে ফেলুন। কয়েকদিন নিয়মিত ব্যবহার করলে উকুন সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে।

আরও পড়ুন: ত্বক টানটান করার উপায় জেনে নিন

মাউথ ওয়াশ

উকুন থেকে মুক্তি পেতে মাউথ ওয়াশ দারুন উপকারী। মাউথ ওয়াশে থাকে থায়ামল ও ইউক্যালিপটাস অয়েল যেটা খুব অল্প সময়ে উকুন মেরে ফেলে। অল্প পরিমাণ মাউথ ওয়াশ নিয়ে স্কাল্পে ভাল করে লাগিয়ে একটা তোয়ালে দিয়ে চুল বেঁধে নিতে হবে। তারপর দুই ঘণ্টা পরে শ্যাম্পু দিয়ে চুল ভাল করে ধুয়ে ফেলতে হবে। সপ্তাহে একবার এটা করলেই দেখবেন উকুন আপনার চুলের ধারে কাছেও আসছে না।

Photo Credit: Pexels

আরও পড়ুন