কাঁঠালের বিচি সংরক্ষণের উপায়

তরকারি বা সবজির সাথে রান্না করে খাওয়ার জন্য কাঁঠাল বিচি সংরক্ষণ করে রাখা যায় সারাবছর। আজ কাঁঠালের বিচি সংরক্ষণের উপায় জেনে নিন। কাঁঠালের সিজন শেষ হয়ে গেলেও আপনি যে কোন সময় খেতে পারবেন মজাদার বিচি।

আরও পড়ুন: কাঁঠালের বিচি দিয়ে মুরগি রান্নার রেসিপি

১ম ধাপ

কাঁঠাল খাওয়ার পর বিচি গুলোকে ভাল ভাবে ধুয়ে রোদে শুকিয়ে ফেলুন। ভালভাবে শুকিয়ে নিলে এর উপরের খোসা ছাড়ানো খুব সহজ হবে।

২য় ধাপ

এরপর ছুরি দিয়ে কাঁঠাল বিচির খোসার একপাশে অল্প একটু কেটে নিন। এখন হাত দিয়ে টান দিলেই পুরো খোসা সহজে উঠে যাবে। আপনি যদি অন্য কোন সহজ উপায়ে খোসা ছড়াতে পারেন, তাহলে সেভাবে করতে পারেন।

৩য় ধাপ

এটা আস্ত রাখা যায় অথবা ছোট করে কেটে নেয়া যায়। যেভাবেই রাখতে চান না কেন, হালকা সিদ্ধ করে নিতে হবে। এজন্য একটা হাড়িতে পানি নিয়ে গরম করে নিন। পানি গরম হয়ে বলক আসলে কাঁঠাল বিচি গুলো দিয়ে দিন। গরম পানিতে বিচি দেয়ার পর আরও ৫ থেকে ৭ মিনিট চুলায় বসিয়ে রাখুন। তারপর সিদ্ধ হয়ে গেলে চুলা থেকে নামিয়ে পানি ঝরিয়ে ফেলুন।

আরও পড়ুন: কাঁঠালের বিচি ভর্তা রেসিপি

৪র্থ ধাপ

এখন কাঁঠালের বিচির বাদামী বা কালো আবরণ তুলে ফেলতে হবে। এই আবরণ সহ রান্না করলে কষের কারনে তরকারির রঙ কালো হয়ে যায়। সিদ্ধ করা কাঁঠালের বিচি গুলো ঠাণ্ডা করে নেবার পর উপরের বাদামী পাতলা আবরণ খুব সহজেই হাত দিয়ে তুলে ফেলতে পারবেন।

৫ম ধাপ

এখন কোন একটা এয়ার টাইট বক্স অথবা জিপলক ব্যাগ অথবা একটু শক্ত পলিথিনের ব্যাগে কাঁঠালের বিচিগুলো ছোট ছোট প্যাক করে ভরে নিন। ডিপ ফ্রিজে রেখে দিন। যেদিন যখন রান্না করবেন তার আগে বের করে নেবেন।

কাঁঠালের বিচি সংরক্ষণের উপায় জেনে নিলেন। এখন সারাবছর কাঁঠালের বিচির স্বাদ উপভোগ করতে পারবেন।

আরও পড়ুন